সরকারি চাকরিজীবিদের ই পাসপোর্ট করার নিয়ম | ই পাসপোর্ট এর জন্য যে কাগজপত্র লাগবে।

সরকারি চাকরিজীবীদের ই পাসপোর্ট করার নিয়ম : বর্তমানে সরকারি চাকরিজীবীদের অফিসিয়াল এবং সাধারণ ই পাসপোর্ট করার নিয়ম। প্রয়োজনীয় কাগজপত্র এবং অনলাইনে ই পাসপোর্ট আবেদন করার নিয়ম সম্পর্কে আজকে বিস্তারিত তুলে ধরবো।

সরকারি চাকরিজীবীদের ই পাসপোর্ট করার জন্য কিছু ভালো সুবিধা আছে। তাই আপনি যদি যেকোনো পর্যায়ের বা যেকোন গ্রেড এর একজন সরকারি চাকরিজীবী হন। তাহলে আপনি খুব সহজে অল্প সময়ের মধ্যে, ই পাসপোর্ট সংগ্রহ করতে পারবেন।

সরকারি চাকরিজীবিদের ই পাসপোর্ট করার নিয়ম | ই পাসপোর্ট এর জন্য যে কাগজপত্র লাগবে।
সরকারি চাকরিজীবিদের ই পাসপোর্ট করার নিয়ম | ই পাসপোর্ট এর জন্য যে কাগজপত্র লাগবে।

তাই আপনি যদি সরকারি চাকরিজীবী হয়ে, ই পাসপোর্ট করার নিয়ম এবং এই পাসপোর্ট এর জন্য যে, কাগজপত্র গুলো লাগবে, সে বিষয়ে জানতে চান? তাহলে আশা করব, আমাদের লেখাটি মনোযোগ দিয়ে পড়লে বিস্তারিত ধারণা নিতে পারবেন।

তাই চলুন আর সময় নষ্ট না করে, জেনে নেয়া যাক সরকারি চাকরিজীবীদের ই পাসপোর্ট করার নিয়ম সম্পর্কে বিস্তারিত।

সরকারি চাকরিজীবিদের ই পাসপোর্ট এর ধরণ সমূহ

বর্তমান সময়ের সরকারি চাকরিজীবীদের জন্য দুই ধরনের পাসপোর্ট আছে। এটি হচ্ছে অফিশিয়াল ই পাসপোর্ট আরেকটি হচ্ছে সাধারণ ই পাসপোর্ট।

তো বন্ধুরা চিন্তার কোন কারণে আমরা এখানে সরকারি চাকরিজীবীদের এই দুই ধরনের ই পাসপোর্ট এর সঠিক ধারনা দেয়ার চেষ্টা করব। আপনি কোন ধরনের ই পাসপোর্ট করবেন। সে বিষয়ে জানতে নেচে দেওয়া তথ্য গুলো অনুসরণ করুন।

অফিসিয়াল ই পাসপোর্ট : সরকারি চাকরিজীবিদের ই পাসপোর্ট করার নিয়ম

সরকারি চাকরিজীবীদের ই পাসপোর্ট করার নিয়ম অন্যান্য সাধারণ ব্যক্তিদের তুলনায় আলাদা। তাই আপনি যদি সরকারি কোন অফিসের কর্মকর্তা বা কর্মচারীর দায়িত্ব পালন করে থাকেন।

সেই দায়িত্ব থাকা অবস্থায় আপনাকে বিদেশ গমন করার আদেশ দেওয়া হয়। সে ক্ষেত্রে আপনি অফিসিয়াল ই পাসপোর্ট পাওয়ার জন্য যোগ্য বলে বিবেচিত হবেন।

এজন্য আপনাকে সরকারিভাবে অর্ডার পাওয়ার কপি এবং এনওসি কিংবা অনাপত্তি’র সনদ পত্র দরকার হবে।

অফিশিয়াল ভাবে, ই পাসপোর্ট এর জন্য জরুরি আবেদন করার দরকার হয় না। আপনারা স্বাভাবিক ভাবে, আবেদন করলে, ই পাসপোর্ট সংগ্রহ করতে পারবেন।

এছাড়া আরো একটি বিষয় হল- অফিসিয়াল মাধ্যমে ই-পাসপোর্ট শুধুমাত্র পাঁচ বছরের জন্য দেওয়া হয়। তো আপনারা চাইলে দশ বছরের জন্য আবেদন করতে পারবেন না।

সরকারি চাকরিজীবীদের ক্ষেত্রে অফিসিয়াল ই পাসপোর্ট কে পাবে, সে বিষয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এর একটি অফিসিয়াল পাসপোর্ট এর পরিপত্র প্রদান করা হয়েছে।

আপনাদের সুবিধার জন্য, আমি সেই পরি পত্র টি নিচের অংশে ইমেজ আকারে প্রস্তুত করেছি। আপনারা চাইলে দেখে নিতে পারেন।

উপরে দেয়া পরিপত্র, মনোযোগ দিয়ে পড়লে অবশ্যই বুঝতে পারবেন। কারা মূলত এই অফিসিয়াল ই পাসপোর্ট এর জন্য যোগ্য।

সাধারণ ই পাসপোর্ট : সরকারি চাকরিজীবিদের ই পাসপোর্ট করার নিয়ম

উপরের আলোচনায় জানতে পারলেন অফিশিয়াল ই পাসপোর্ট সম্পর্কে। এখন আমি আপনাদের জানাবো সাধারণ ই পাসপোর্ট করার নিয়ম সম্পর্কে।

তো আপনি যদি শুধুমাত্র একজন সরকারি কর্মকর্তা বা অবসরপ্রাপ্ত সরকারি চাকরিজীবী হন। বিশেষ কোন কাজে বিদেশ যাওয়ার দরকার হয়। তার জন্য সরকারি আদেশ প্রাপ্ত না হয়ে থাকেন।

সেক্ষেত্রে আপনি সাধারণ ই পাসপোর্ট করতে পারবেন। এজন্য আপনাদের সুবিধা হচ্ছে- পুলিশ ভেরিফিকেশন সার্টিফিকেট ছাড়াই, আপনারা ই পাসপোর্ট সম্পন্ন করে নিতে পারবেন। বিশেষ করে, রেগুলার ডেলিভারি ফি দিয়ে আরও জরুরী সুবিধা গুলো ভোগ করতে পারবেন।

অফিসিয়াল ই পাসপোর্ট করার নিয়ম

আপনারা উপরের আলোচনায় অফিশিয়াল পাসপোর্ট এবং সাধারন পাসপোর্ট সম্পর্কে ধারণা পেয়ে গেলেন। এখন আমি আপনাদের জানাবো, অফিশিয়াল ই পাসপোর্ট করার নিয়ম সম্পর্কে বিস্তারিত।

আপনারা অফিসিয়াল পাসপোর্ট এর জন্য পাঁচ বছর মেয়াদী এবং সাধারণ কিংবা রেগুলার ডেলিভারির জন্য আবেদন করতে পারবেন।

এজন্য সাধারন পাসপোর্ট দিয়ে, আপনারা জরুরি সুবিধা গ্রহণ করতে পারবেন। এছাড়া আপনাকে বাড়তি কোনো ফি প্রদান করতে হবে না।

তাই আপনি যদি কোন সরকারি চাকরিজীবীর দায়িত্ব পালন করেন। কোন প্রশিক্ষণ প্রাপ্তির জন্য বিদেশ যাওয়ার সরকারি আদেশ প্রাপ্ত হয়ে থাকেন।

সে ক্ষেত্রে আপনাকে ই পাসপোর্ট আবেদনের পূর্বে সবার আগে, নিচে দেওয়া প্রয়োজনীয় কাগজ পত্র গুলো সংগ্রহ করতে হবে।

অফিসিয়াল ই পাসপোর্ট এর জন্য যে কাগজপত্র লাগবে ?

আপনি যদি সরকারি চাকরিজীবী হিসেবে বিদেশ যেতে চান? সেক্ষেত্রে আপনাকে কি কি কাগজপত্র সংগ্রহ করতে হবে। সে বিষয়ে জানতে নিচের অংশ গুলো দেখুন। যেমন-

  • সরকারি আদেশ পত্রের কপি।
  • সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়, বিভাগ, দপ্তর এর অন আপত্তি সনদপত্র।
  • আবেদনকারীর জাতীয় পরিচয় পত্রের ফটোকপি।

আপনারা এই সকল কাগজপত্র সংগ্রহ করতে পারলে অফিসিয়াল ভাবে ই পাসপোর্ট করতে পারবেন। তাছাড়া আপনি ৫ বছর মেয়াদী  সাধারণ পাসপোর্ট এর জন্য আবেদন করতে পারবেন।

আপনি যখন পাসপোর্ট আবেদন এনরোলমেন্ট এর জন্য সাবমিট করবেন। সে সময় আপনাকে অবশ্যই জানিয়ে দিতে হবে যে আপনি অফিশিয়াল পাসপোর্ট এর জন্য আবেদন করেছেন।

এছাড়া আপনার সরকারি আদেশ এবং এনওসির কপি সাবমিট করতে হবে আবেদন পত্রের সাথে।

তো বন্ধুরা এখন জেনে নেয়া যাক সরকারি চাকরিজীবীরা সরকারি আদেশ না পেলে কিভাবে ই পাসপোর্ট এর জন্য আবেদন করবেন।

সাধারণ পাসপোর্ট এর জন্য আবেদন করতে চাইলে, অবশ্যই আপনাকে NOC কপি আপনার দপ্তর থেকে সংগ্রহ করতে হবে।

সাধারণ ই পাসপোর্টের জন্য আবেদনের নিয়ম

অফিসিয়াল ই পাসপোর্ট এর জন্য আপনাকে পাঁচ বছর মেয়াদী। এবং সাধারণ ও রেগুলার ডেলিভারির জন্য আবেদন করতে হবে।

এখন সাধারণ পাসপোর্ট দিয়ে আপনি জরুরি সুবিধা গুলো ভোগ করতে পারবেন এক্ষেত্রে বাড়তি কোনো ফি প্রযোজ্য হবে না। তাই চলুন জেনে নেয়া যাক সাধারণ ই পাসপোর্ট এর জন্য যে কাগজপত্র গুলো লাগবে।

সাধারণ ই পাসপোর্ট এর জন্য যে কাগজপত্র লাগবে ?

আপনারা যারা সাধারণ ই পাসপোর্ট এর জন্য আবেদন করতে চান? তাদেরকে অবশ্যই প্রয়োজনীয় কিছু কাগজপত্র সংগ্রহ করতে হবে। যেমন-

  • সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়, বিভাগ এবং দপ্তরের অনাপত্তি সনদপত্র।
  • আবেদনকারীর জাতীয় পরিচয় পত্রের ফটোকপি।

আপনারা যখন সাধারণ ই পাসপোর্ট আবেদনটি এনরোলমেন্ট এর জন্য সাবমিট করবেন। তখন অবশ্যই জানাতে হবে আপনি সরকারি চাকরিজীবী হিসেবে পাসপোর্ট এর জন্য আবেদন করেছেন। এছাড়া আপনার কাছে Noc এর কপি আছে। সেটি জমা দিবেন।

আরো পড়ুনঃ অস্ট্রেলিয়া যেতে কত টাকা লাগে ? অস্ট্রেলিয়া ভিসা খরচ কত? বিস্তারিত জানুন!!!

শেষ কথাঃ

তো বন্ধুরা আশা করি আপনারা যারা সরকারি চাকরিজীবীদের ই পাসপোর্ট করার নিয়ম জানতে চেয়েছিলেন। তাদের সুবিধার জন্য আমরা এখানে, অফিসিয়াল ই পাসপোর্ট এবং সাধারণ ই পাসপোর্ট আবেদন করার নিয়ম জানিয়ে দিয়েছি।

এখন আপনার প্রয়োজনীয় ই পাসপোর্ট করার জন্য কাগজপত্র সংগ্রহ করে, পাসপোর্ট অফিসে গিয়ে, আবেদন পত্র সহ সকল কাগজপত্র জমা দিতে পারেন।

সরকারি চাকরিজীবিদের ই পাসপোর্ট করার নিয়ম সম্পর্কে আপনার যদি কোন প্রশ্ন থাকে। আমাদের কমেন্ট করে জানাতে পারেন। আর আশা করি, উক্ত আলোচনা পড়ে সরকারি চাকরিজীবিদের ই পাসপোর্ট করার নিয়ম কি সেটি বুঝতে পারছেন।

এছাড়া আমাদের এই ওয়েবসাইট থেকে এই, ই পাসপোর্ট সংক্রান্ত আরো অন্যান্য তথ্য পেতে চাইলে নিয়মিত ভিজিট করুন।

ধন্যবাদ।

আপনার জন্য আরও আর্টিকেল

Leave a Comment