ভিডিও এডিটিং সফটওয়্যার Free Download (মোবাইল ও পিসির জন্য)

ভিডিও এডিটিং কি : ভিডিও এডিটিং হলো ভিডিও ফাইলকে পরিবর্তন করে তোলার একটি প্রক্রিয়া। এটি অনেক গুলো ধাপে এডিটিং করার মাধ্যমে, প্রযুক্তিগত ভাবে যা অপ্রয়োজনীয় এবং প্রয়োজনীয় অংশ গুলো পরিবর্তন করা হয়।

ভিডিও এডিটিং সংক্রান্ত প্রযুক্তিগত যন্ত্রপাতির ব্যবহারের মাধ্যমে, আলোক সংক্রান্ত মডিফিকেশন, ক্রম পরিবর্তন, কেটে নেওয়া, মিশ্রণ, শব্দ পরিবর্তন এবং অন্যান্য পরিবর্তন গুলো করা হয়।

ভিডিও এডিটিং সফটওয়্যার Free Download (মোবাইল ও পিসির জন্য)
ভিডিও এডিটিং সফটওয়্যার Free Download (মোবাইল ও পিসির জন্য)

এছাড়াও ভিডিও এডিটিং করে প্রযুক্তিগত অংশগুলোকে সংশোধন করে ভিডিওর মধ্যে পর্যবেক্ষণ যোগ্যতা এবং মানসম্পন্নতার সৃষ্টি করা হয়।

একজন ভিডিও এডিটর বিভিন্ন সংক্রান্ত সফটওয়্যার ব্যবহার করে ভিডিও এডিটিং করতে পারেন। ভিডিও এডিটিং প্রক্রিয়াটি মূলত একটি ক্রিয়াকলাপ যা একটি উদ্যোগ থেকে শুরু করে যায় এবং শেষ হয়ে যায় একটি সম্পূর্ণ প্রকল্পের মাধ্যমে।

ভিডিও এডিটিং মোবাইলে নাকি পিসিতে ভালো হবে?

ভিডিও এডিটিং মোবাইলে ও পিসিতে উভয়ই করা সম্ভব। এক্সপের্ট এবং পেশাদার ভিডিও এডিটররা সাধারণত পিসি ব্যবহার করে কাজ করেন।

কারণ এটি বিশেষত বৃহত্তর পরিসরের স্বাধীনতা, শক্তি এবং বিপণিত সম্ভব। পিসিতে উন্নত ভিডিও এডিটিং সফটওয়্যার উপলব্ধ থাকতে পারে যা প্রফেশনাল কাজের জন্য উপযুক্ত হয়।

তবে, সরল প্রযুক্তি এবং সহজ প্রযুক্তি এবং প্রথাগত সম্পাদনা প্রযুক্তির জন্য মোবাইল ডিভাইস গুলি উপযুক্ত হতে পারে। সম্পূর্ণ ভিডিও সম্পাদনা এবং প্রভাবশালী গ্রাফিক্স প্রয়োজন হলে পিসি প্রয়োজন হতে পারে।

আপনার প্রয়োজন এবং সম্পাদনা প্রক্রিয়ার জন্যে আপনি কোনটি ব্যবহার করবেন, তা আপনার একটি ব্যক্তিগত পছন্দ। যদি আপনি কেবলমাত্র সহজ সম্পাদনা করতে চান।

যা মোবাইল ডিভাইসে সাথেও সম্পন্ন হতে পারে। তবে মোবাইল এডিটিং সফটওয়্যার আপনার জন্য উপযুক্ত হতে পারে।

মোবাইলের জন্য ভিডিও এডিটিং সফটওয়্যার Free Download তালিকা

মোবাইলের জন্য বিনামূল্যে ডাউনলোড করা বিভিন্ন ভিডিও এডিটিং সফটওয়্যারের তালিকা নিম্নলিখিত সফটওয়্যার গুলি ব্যবহার করতে পারেন। যেমন-

  • Adobe Premiere Rush: এটি বিশ্বব্যাপী পরিচিত এবং উপযুক্ত একটি মোবাইল ভিডিও এডিটিং সফটওয়্যার।
  • FilmoraGo: এটি প্রযুক্তিগত বৈশিষ্ট্যে সম্পন্ন এবং ব্যবহারকারীর জন্য সহজ ব্যবহারের একটি সফটওয়্যার।
  • PowerDirector: এটি প্রফেশনাল ভিডিও সম্পাদনা সম্পন্ন একটি মোবাইল সফটওয়্যার।
  • Kinemaster: এটি উন্নত সম্পাদনা সম্পন্ন একটি মাল্টিমিডিয়া সফটওয়্যার।
  • VivaVideo: এটি প্রফেশনাল স্টাইলে ভিডিও সম্পাদনা করার জন্য একটি পরিচিত সফটওয়্যার।
  • Quik: এটি ছবি এবং ভিডিও স্লাইডশো তৈরির জন্য একটি সহজ সফটওয়্যার।
  • InShot: এটি সম্পূর্ণ সম্পাদনা সম্পন্ন একটি ভিডিও সফটওয়্যার, যা ছবি, ভিডিও, মিউজিক, টেক্সট ইত্যাদি সংযোজন করতে পারে।

এই সব গুলো সফটওয়্যারই মোবাইল ডিভাইসে উপলব্ধ এবং বিনামূল্যে ডাউনলোড করা যায় প্লে স্টোরে থেকে। তবে, কিছু অতিরিক্ত বৈশিষ্ট্য ব্যক্তিগত ব্যবহারের জন্য পেইড সফটওয়্যার ব্যবহার করতে হতে পারে।

আপনার পছন্দ অনুযায়ী সফটওয়্যারটি পছন্দ করতে পারেন এবং ভিডিও এডিটিং করতে শুরু করতে পারেন।

মোবাইলের জন্য ভিডিও এডিটিং সফটওয়্যার বৈশিষ্ট্য সমূহঃ

মোবাইলের জন্য বিনামূল্যে ডাউনলোড করা যেকোনো ভিডিও এডিটিং সফটওয়্যার সাধারণত একটি প্রাথমিক বৈশিষ্ট্য প্রদান করে। নিম্নলিখিত বৈশিষ্ট্যগুলির মধ্যে অন্তর্ভুক্ত হতে পারে। যেমন-

  • ভিডিও সংক্রান্ত কাট করা, সংযোজন, এবং পরিবর্তন করা।
  • টেক্সট, ক্যাপশন, এবং টাইটেল যুক্ত করা।
  • অপশন গুলোর মাধ্যমে ছবি এবং ভিডিওর ক্যালিব্রেশন, স্কেলিং, রোটেশন, ট্রান্সফর্মেশন ইত্যাদি এডিটিং করা।
  • ফিল্টার এবং প্রিসেট ব্যবহার করে ভিডিওর রঙ, বৃত্ত, এক্সপোজার, শার্পনেস ইত্যাদি পরিবর্তন করা।
  • বিভিন্ন ট্রানজিশন এফেক্ট ব্যবহার করে ভিডিও মধ্যে অংশগুলি স্মুদ করা বা পরিবর্তন করা।
  • শব্দ পরিবর্তন, ভয়েজ দিয়ে কথা বলা, শব্দগুলি এডিটিং করা।
  • সাময়িক বিজ্ঞাপন প্রদর্শনের জন্য লেয়ার এবং ওভারলে চলক সংযোজন করা।
  • সাময়িক চলক এবং ট্রান্সিশন সংযোজন করা ভিডিও পরিমাণের প্রদর্শন করার জন্য।
  • পছন্দমতো সম্পূর্ণ ভিডিও রেজোলিউশনে রেখে সংযোগ করা।

এই সফটওয়্যার গুলির মধ্যে কিছু বিশেষ বৈশিষ্ট্য সম্ভবত নিশ্চিত সফটওয়্যারের উপর নির্ভর করবে। একটি প্রিমিয়াম সফটওয়্যার আরো বৈশিষ্ট্য এবং উন্নত কার্যক্রম প্রদান করতে পারে।

পিসির জন্য ভিডিও এডিটিং সফটওয়্যার Free Download তালিকা

পিসির জন্য বিনামূল্যে ডাউনলোড করার জন্য ভিডিও এডিটিং সফটওয়্যারের তালিকা নিম্নলিখিত সফটওয়্যার গুলো থেকে পছন্দ করতে পারেন। যেমন-

  • Shotcut: এটি উইন্ডোজ, ম্যাক্স, এবং লিনাক্সের জন্য প্রযুক্তিগত এডিটিং সম্পন্ন একটি সফটওয়্যার।
  • Davinci Resolve: এটি উচ্চ মানের ভিডিও এডিটিং এবং গ্রেডিং সফটওয়্যার। এটি প্রিমিয়াম ফিচার অনেক জনপ্রিয় হয়।
  • HitFilm Express: এটি ভিডিও এডিটিং এবং ভিজ্যোয়াল ইফেক্ট সম্পর্কিত পরিবর্তনশীল একটি সফটওয়্যার।
  • Lightworks: এটি উন্নত এবং ব্যবহারকারীর বিনোদনের জন্য সুবিধাজনক ভিডিও এডিটিং সফটওয়্যার।
  • Openshot: এটি উন্নত এডিটিং সম্পন্ন একটি মুক্ত ভিডিও এডিটিং সফটওয়্যার।
  • VSDC Free Video Editor: এটি বিভিন্ন ফিচার সম্পন্ন ভিডিও এডিটিং সফটওয়্যার।
  • Blender: এটি একটি পরিপূর্ণ বিজ্ঞান, গেম এবং ভিডিও এডিটিং সফটওয়্যার।

উপরে উল্লিখিত সফটওয়্যার গুলো ফ্রি ডাউনলোড ও ব্যবহার করা যায়। আপনি এই সফটওয়্যার গুলোর ওয়েবসাইটে যাওয়ার পরামর্শ পাবেন, যদি আপনি আরও বিস্তারিত জানতে চান।

পিসরি জন্য ভিডিও এডিটিং সফটওয়্যার বৈশিষ্ট্য সমূহঃ

পিসির জন্য বিনামূল্যে ডাউনলোড করা যেকোনো ভিডিও এডিটিং সফটওয়্যারের বৈশিষ্ট্য গুলি নিম্নলিখিত হতে পারে। যেমন-

  • ভিডিও ফাইল গুলো কাট করা, সংযোজন করা, এবং মার্জ করা।
  • ট্রানজিশন এফেক্ট ব্যবহার করে ভিডিও মধ্যে এডিটিং করা।
  • কাস্টম ফিল্টার ব্যবহার করে ভিডিওর রঙ, বৃত্ত, শার্পনেস ইত্যাদি পরিবর্তন করা।
  • আলাদা আলাদা অডিও ট্র্যাক সংযোজন এবং পরিবর্তন করা।
  • অ্যানিমেশন, টেক্সট, ক্যাপশন ইত্যাদি সংযোজন করে ভিডিও এডিটিং করা।
  • স্টক ভিডিও এবং অডিও কনটেন্ট পরিচালনা করা।
  • ভিডিওর সঙ্গে সম্পর্কিত গ্রাফিক্স এবং অনুপ্রেরণা প্রদর্শন করা।
  • ভিডিওর নির্মাণের জন্য গ্রাফিক্স এবং কার্টুন তৈরি করা।
  • ভিডিও ফাইলের সংগ্রহ করা, সংক্রান্ত ফাইলের প্রকাশ করা এবং আরও অনেক কিছু।

এই সফটওয়্যার গুলো পিসি ব্যবহারকারীদের পরিষেবা করার জন্য নির্মিত হয়েছে এবং বিভিন্ন এডিটিং এবং মাল্টিমিডিয়া ফিচার প্রদান করে।

শেষ কথাঃ

ভিডিও এডিটিং সফটওয়্যার গুলো পিসি এবং মোবাইল উভয়েই উপযুক্ত হতে পারে। পিসির জন্য অনেক ফ্রি সফটওয়্যার উপলব্ধ যা আপনি ডাউনলোড এবং ব্যবহার করতে পারেন।

মোবাইলের জন্যও অনেক ফ্রি ভিডিও এডিটিং অ্যাপস আছে। যা আপনি মোবাইল ডিভাইসে ইনস্টল করতে পারেন। এগুলি আপনাকে ভিডিও এডিটিং, ট্রানজিশন, ইফেক্ট, অডিও সংযোগ, টেক্সট সংযোজন, গ্রাফিক্স প্রদর্শন, ইত্যাদি বৈশিষ্ট্য সরবরাহ করবে।

আপনি পছন্দমত সফটওয়্যার পছন্দ করে, সেটটি ডাউনলোড করতে পারেন এবং তারপরে ভিডিও এডিটিং শুরু করতে পারেন।

আপনার প্রয়োজনে অবশ্যই টিউটোরিয়াল দেখতে পারেন বা অফিসিয়াল ডকুমেন্টেশন যাচাই করতে পারেন।

শুভকামনা রইলো ভিডিও এডিটিং করার জন্য!

আপনার জন্য আরও আর্টিকেল

Leave a Comment